সর্বশেষ আপডেট :December 6, 2019
Ovinews24

আমার জন্য মা’কে কাঁদতে হয়েছিলো-নীশিতা…

August 20, 2019

অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় যে সংবাদ মাধ্যমগুলোতে শুধু তারকাদের নিজের কাজের খবরই প্রকাশ পায়। কিন্তু তারকাদের পরিবারের গল্প খুব কমই প্রকাশ পায়। অভিনিউজটোয়েন্টিফোরডটকমে তারকাদের পরিবার নিয়ে না বলা কথাগুলো এই বিভাগে প্রকাশ পাবে। সঙ্গীতশিল্পী নীশিতা বড়ুয়া তার মাকে নিয়ে না বলা কিছু কথা বলেছেন। প্রকাশ হলো নীশিতার বয়ানে।
‘আমার সঙ্গীত জীবন গড়ে ওঠার নেপথ্যে আমার মায়ের ভূমিকাই সবচেয়ে বেশি। আমি জয়েন্ট ফ্যামিলিতে বড় হয়েছি। আমার কাকুরাও আমাকে শাসন করতেন। আমার মা তা মেনে নিতেন। কারণ আমার মা চাইতেন সবসময় সবাইকে একই সুতোয় বেঁথে রেখে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে। আমার পরিবার ভীষণ কনজারভেটিভ একটি পরিবার। তারপরও মায়ের কারণেই আমি দেশের বাইরে দুই বছর পড়ার সুযোগ পেয়েছিলাম। এইচএসসি পাস করার পর যখন চট্টগ্রাম কলেজে ভর্তি হবার সুযোগ পেলাম তখন পরিবারের সবাই যেখানে ছেলে মেয়ে একসঙ্গে পড়ার বিরোধী তখন আমার মা’ই সেখানে পড়ার সাহস যুগিয়েছিলেন। ক্লোজআপ ওয়ান অডিশনে যখন আমাকে কোনরকম কার্ড দেয়া ছাড়াই ওয়েটিং লিস্টে রাখা হয়েছিলো। তখন রাত বারোটা পর্যন্ত ঘরের বাইরে থাকতে হয়েছিলো। কিন্তু আমার মাকে বাইরে থাকার প্রত্যেকটা কারণ ব্যাখা করতে হয়েছিলো। তাই মায়ের সহযোগিতা ছাড়া আমার আজকের নীশিতা হয়ে ওঠা হতোনা। এখন সাধারণত আমি নিজেই যেকোন সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকি। কিন্তু যেখানে নড়বড়ে হয়ে যাই তখন মা’ই আমার সিদ্ধান্ত নেবার ক্ষেত্রে পাশে থাকেন। মা’রা এমনই , সবসময় ভালোই বেসে যেতে পারেন। আমার মাকে আমি কষ্ট দিয়েছি বলে আমার মনে পড়েনা। আমি একটু রাগী, একটু বেশি স্ট্রেট ফরওয়ার্ড। মনে আছে একবার আমার জন্য আমার মাকে কাঁদতে হয়েছিলো যখন আমি পঞ্চম শ্রেণীতে বৃত্তি পরীক্ষার জন্য যখন নির্বাচিত হতে পারিনি। মাকে দেখেছিলাম কান্না করছেন। পরবর্তীতে একটি পরীক্ষায় আমি ১০০’তে ৯৯ পেয়েছিলাম। মা খুশি হয়েছিলেন। মায়ের খুশির জন্যই সারাটা জীবন কাজ করে যাবো।’

Leave a Reply

এটাও পছন্দ করতে পারেন

মায়ের কারণেই আজকের আমি-শিউলী শিলা

‘আম্মু যেন কোন কারণে কষ্ট না পান’-ইশানা খান

‘আম্মুর হাতের খাবার আমার সবচেয়ে প্রিয়’-লিজা

‘পৃথিবীর সবটুকু সুখ আম্মুকে দিতে চাই’-শাহনূর

‘জীবনজুড়ে এক অনুভূতির নাম মা’-শান্তা জাহান

‘মায়ের কাছে আমি সেরা’-ইউসুফ আহমেদ খান

Copy link
Powered by Social Snap