সর্বশেষ আপডেট :নভেম্বর ১৩, ২০১৯
Ovinews24

একজন সাচ্চু অনেকের পথ প্রদর্শক

অক্টোবর ১৬, ২০১৯

বিনোদন প্রতিবেদক : শহীদুল আলম সাচ্চু, দুইবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত গুনী অভিনেতা। সাচ্চু একজন পেশাদার অভিনেতা হলেও অনেকের অভিনয় জীবনের পথ প্রদর্শক। তবে এই বিষয়টা কখনোই খোলাসা করে কাউকেই বলা হয়ে উঠেনি তার। বলতেও আগ্রহ নেই তার। নীরবে নিভৃতেই কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন তিনি। খুউব ছোটবেলা থেকেই অভিনয়ের সাথে তার সখ্যতা থাকলেও নব্বই দশকের শুরু থেকে পেশাদার একজন অভিনেতা হিসেবে তার যাত্রা শুরু হয়। মূলত নব্বই দশকের শুরুতে দারাশিকোর পরিচালনায় ‘অঞ্জলি’ সিনেমায় অভিনয়ের মধ্যদিয়ে একজন পেশাদার অভিনেতা হিসেবে যাত্রা শুরু করেন। এরপর তিনি একে একে চাষী নজরুল ইসলাম, শহীদুল ইসলাম খোকন, মতিন রহমান, কোহিনূর আক্তার সূচন্দা, প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী’সহ আরো অনেকের নির্দেশনায় চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। নারগিস আক্তার পরিচালিত ‘মেঘলা আকাশ’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ খল অভিনেতা হিসেবে প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। এরপর তিনি গোলাম রব্বানী বিপ্লবের ‘বৃত্তের বাইরে’ সিনেমাতে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব চরিতত্রাভিনেতা হিসেবে একই পুরস্কারে ভূষিত হন। তবে এই নিয়ে দু:খ রয়ে গেছে তার। কারণ সাচ্চু তার মাকে কথা দিয়েছিলেন তিন বার তার মায়ের হাতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার তুলে দিবেন। কিন্তু সেই স্বপ্ন পূরণের আগেই তার মা পরপারে চলে যান। একজন অভিনেতা হিসেবে নিজের অবস্থান নিয়ে সন্তুষ্ঠ সাচ্চু। সাচ্চু বলেন,‘ দেশের যে প্রান্তেই শূটিং করতে যাই না কেন সাধারণ মানুষ আমার প্রতি যে ভালোবাসা, শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন তাতে মুগ্ধ আমি। আবার দেশের বাইরে বিশেষত যেখানে বাংলাদেশীরা থাকেন সেখানে গেলেও ভক্তদের ভালোবাসায় মুগ্ধ হই। আবার এমনও দেখা গেছে মক্কা মদিনায় গিয়েছি সেখানেও আমাকে দেখে কেউ এগিয়ে এসে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন। অভিনয় না করলে সবার এতো ভালোবাসা পাওয়া হতোনা। পরিশেষে একটি কথাই বলতে চাই, মানুষকে মানবিক হতে হবে, তাহলেই দেশ তথা পৃথিবী সুন্দর হবে।’ সাচ্চু দীর্ঘ পনেরো বছর যাবত চ্যানেল আইতে চাকুরী করছেন। বর্তমানে তিনি চ্যানেলটিতে জেনারেল ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত। তার অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা হচ্ছে ‘বেপরোয়া’ ও ‘নোলক’। অভিনয়ে তার যাত্রা শুরু সত্তর দশকের শুরুতে রাজধানীর গ্রীণ রোড স্টাফ কোয়ার্টারে। তবে তার আগে তিনি শেখ কামালের শিশু সংগঠন ‘পাক পাকালির ঝাক’র সাথে যুক্ত ছিলেন। বাংলা একাডেমির বর্ধমান হাউজে প্রথম তিনি মঞ্চ নাটকে অভিনয় করেন। এরপর তিনি ‘কিশোর নাট্যম’র হয়ে ফিল্ড ড্রামা ‘আদি থেকে বিংশতী’তে অভিনয় করেন হারুন অর রশীদের নির্দেশনায়। টেলিভিশনে তিনি তিনশোর বেশি নাটকে অভিনয় করেছেন। তিনি অভিনয় শিল্পী সংঘ’র সাবেক সভাপতি। তিনি ‘দর্শক শ্রোতা পাঠক’ ফাউণ্ডেশন’র প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক।
ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

Leave a Reply

এটাও পছন্দ করতে পারেন

প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চান চঞ্চল মাহমুদ ও তার স্ত্রী

শুভ জন্মদিন সুর স্রষ্টা ফরিদ আহমেদ

লাইফটাইম অ্যাচিভম্যান্ট অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত গাজী মাজহারুল আনোয়ার

Copy link
Powered by Social Snap