সর্বশেষ আপডেট :নভেম্বর ১৫, ২০১৯
Ovinews24

নায়ক রাজের শূণ্যতা পূরণ হবার নয়, মৃত্যু বার্ষিকীতে গভীর শ্রদ্ধা..

আগস্ট ২১, ২০১৯

বিনোদন প্রতিবেদক : দেখতে দেখতে বাংলাদেশের সিনেমার নায়ক রাজ রাজ্জাকের চলে যাবার দু’বছর হয়ে গেলো। আজ থেকে দুই বছর আগের এই দিনে সন্ধ্যায় নায়ক রাজ রাজ্জাক দেশ বিদেশের বাঙ্গালী কোটি কোটি দর্শককে কাঁদিয়ে পরপারে চলে যান। তার চলে যাওয়ায় চলচ্চিত্রে অভিভাবকের জায়গায় যে শূণ্যতা তৈরী হয়েছে তা আজও পূরণ হয়নি। অনেক চলচ্চিত্র প্রেমীদের মতে এই শূণ্যতা আসলে পূরণ হবার নয়। তাইতো বাংলাদেশের সিনেমাপ্রেমী মানুষেরা এখনো নায়ক রাজকে বুকে লালন করে তার জন্য দোয়া করেন। তার আতœার মাগফেরাত কামনা করেন। চিত্রালীর সম্পাদক প্রয়াত আহমদ জামান চৌধুরী নায়ক রাজ্জাককে ‘নায়করাজ’ উপাধি দিয়েছিলেন। দুই বাংলায় নায়ক হিসেবে রাজ্জাকের সাফল্য ছিল ঈর্ষণীয়। ১৯৬৬ সালে মুক্তি পায় জহির রায়হান পরিচালিত চলচ্চিত্র ‘বেহুলা’। এ চলচ্চিত্রের অন্যতম কেন্দ্রীয় চরিত্রে ছিলেন রাজ্জাক। এ সিনেমা দিয়েই ঢাকাই চলচ্চিত্রে দীর্ঘ অভিনয় জীবনের যাত্রা শুরু করেছিলেন তিনি। এরপর অসংখ্য হিট চলচ্চিত্রে আমরা তাকে নায়ক হিসেবে পেয়েছিলাম। ১৯৪২ সালের ২৩শে জানুয়ারি কলকাতায় তার জন্ম। ১৯৬৪ সালে কলকাতায় হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গার কারণে সপরিবারে ঢাকায় চলে আসেন তিনি। সে সময় তার অভিনয় জীবনে সবচেয়ে বড় সুযোগটি দেন প্রখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক জহির রায়হান। ‘বেহুলা’ চলচ্চিত্রের নায়কের চরিত্রে তিনি অভিনয় করান রাজ্জাককে। এরপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি এই মহানায়ককে। কয়েক দশকের অভিনয় জীবনে তিনি ‘জীবন থেকে নেয়া’, ‘অবুঝ মন’, ‘রংবাজ’, ‘আলোর মিছিল’, ‘অশিক্ষিত’, ‘অভিযান’, ‘আকাঙ্খা’, ‘ নীল আকাশের নীচে’, ‘মালা মতি’, ‘মৌচোর’, ‘পাগলা রাজা’, ‘সমর’, ‘সন্ধি’, ‘সন্ধান’ সহ প্রায় ৩০০টি বাংলা ও উর্দু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। এছাড়াও পরিচালনা করেছেন প্রায় ১৬টি চলচ্চিত্র। তার নির্মিথ সর্বশেষ সিনেমা ছিলো ‘আয়না কাহিনী’। রাজ্জাক তার বিপরীতে নায়িকা হিসেবে সুচন্দার পর শবনম, কবরী, ববিতা, শাবানাসহ তখনকার প্রায় সব নায়িকাকে নিয়ে একের পর এক ব্যবসাসফল চলচ্চিত্র উপহার দেন বাংলাদেশের সিনেমায়। নায়করাজের মৃত্যুবার্ষিকীতে আজ জোহরের নামাজের পর নায়ক রাজের বাসাতেই দোয়া-মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। রাজধানীর তিনশ ফিটের রাস্তা নায়ক রাজ পরিবারের একটি এতিমখানা আছে। সেখানে কোরান খতমসহ এতিম শিশুদের খাওয়ানো হবে। সমরাট বলেন,‘ বাবার জন্য সবাই দোয়া করবেন। জানা যায় চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি, পরিচালক সমিতি, প্রযোজক পরিবেশক সমিতির সদস্যরা নায়করাজ রাজ্জাকের স্মরণে দোয়া ও তার কবরস্থান জিয়ারত করবেন বলে জানা যায়। তবে পরবর্তী প্রজন্মের মধ্যে নায়ক রাজ রাজ্জাক সম্পর্কে তথ্যাদি জানিয়ে দেবার ব্যাপারে বিএফডিসিকেই উদ্যোগ নিতে হবে বলে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন চলচ্চিত্রপ্রেমীরা।

Leave a Reply

এটাও পছন্দ করতে পারেন

সেই নির্মাতার হাত ধরে আবারো তমা, নতুন স্বপ্নের শুরু

শুভ জন্মদিন বিদ্যা সিনহা মিম

শুভ জন্মদিন প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী

যুগল নির্মাতার নতুন জুটি’র ‘উন্মাদ’ শুরু

অনেক ফেরানোর পরে ‘উন্মাদ’

সেই চাঁদনী এই শাবনাজের জন্মদিন কাল

Copy link
Powered by Social Snap