সর্বশেষ আপডেট :অক্টোবর ১৮, ২০১৯
Ovinews24

প্রশংসিত হচ্ছে সমরজিৎ’র ও যে আমায় মন্দ বলে…

আগস্ট ১৬, ২০১৯

শপথ আলী : ভারত সরকারের বৃত্তি নিয়ে দিল্লীর গান্ধর্ব মহাবিদ্যালয় থেকে সঙ্গীতে উচ্চতর ডিগ্রী নেয়া সঙ্গীতশিল্পী সমরজিৎ রায় সঙ্গীত বিশারদের চূড়ান্ত পরীক্ষায় সারা ভারতবর্ষে প্রথম স্থান অধিকার করে অর্জন করেন পন্ডিত ডি.বি পলুস্কর এওয়ার্ড সহ মোট ৭টি গুরুত্বপূর্ণ অ্যাওয়ার্ড।

আমাদের সঙ্গীতাঙ্গনের এমন একজন সঙ্গীতশিল্পীর এই প্রাপ্তি অনেকটাই যেন আড়ালে থাকা একটি খবর। কিন্তু তারপরও নীরবে নিভৃতে সঙ্গীতের সাধনায় রপ্ত তিনি। নিজের মতো করেই গান করে যাচ্ছেন গুনী এই কন্ঠশিল্পী। কিছুদিন আগে ভারতের প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী হৈমন্তী শুক্লার সঙ্গে ‘তুমি ভোরের পাখির মতো’ গানছবি এন্টারটেইনম্যান্ট ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত হয়েছে।

গানটির কথা লিখেছেন এবং সুর সঙ্গীত করেছেন সমরজিৎ রায় নিজেই। এরইমধ্যে গানটি শ্রোতা দর্শকের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। গেলো ১ আগস্ট ছিলো সমরজিৎ’র জন্মদিন। জন্মদিন উপলক্ষ্যে সেদিন ‘ও যে আমায় মন্দ বলে’ গানটি জি-সিরিজের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ পায়। গানটির কথা লিখেছেন জি কে দত্ত এবং সুর সঙ্গীত করেছেন সমরজিৎ নিজেই।

নতুন এই গান এবং গান নিয়ে নিজের ভাবনা প্রসঙ্গে সমরজিৎ রায় বলেন, ‘গান হচ্ছে আমার কাছে প্রার্থনা। গান আমার নেশা, গানই আমার পেশা, গানই আমার সবকিছু। সঙ্গীতে আমার আজকের দিন পর্যন্ত উঠে আসার নেপথ্যে আমার বাবা নেপাল চন্দ্র রায়, আমার রত্না রায় এবং আমার সকল গানের গুরুর অবদান আমি কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করছি শ্রদ্ধার সঙ্গে। তাদের নিরলস শ্রমের কারণেই আমার আজকের সমরজিৎ হয়ে উঠা। গান নিয়ে আমার স্বপ্ন আজীবন সুরে গাইতে চাই এবং আগেরকার দিনের শিল্পীদের মতো কিছু চিরস্থায়ী গান উপহার দিয়ে যেতে চাই। আমার নতুন গান ‘ও যে আমার মন্দ বলে’ ঠিক তেমনই একটি গান। শ্রোতারা আমার নতুন এ গানে মুগ্ধ হচ্ছেন, আমি বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছি।’

গানের পাশাপাশি সমরজিৎ ভারতের চন্ডীগড়ের প্রাচীন কলাকেন্দ্র থেকেও তবলায় সঙ্গীত বিশারদ ডিগ্রী অর্জন করেন। শিল্পী সমরজিৎ রায় দীর্ঘ ১২ বছর উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতের শিক্ষক হিসেবে শিক্ষকতা করেছেন দিল্লীর গান্ধর্ব মহাবিদ্যালয়ে। তাছাড়া তার প্রথম হিন্দী গানের এলবাম ‘তেরা তসব্বুর’ ভারতের ‘জিমা এওয়ার্ড ২০১১’ এ ‘সেরা জনপ্রিয় এলবাম’ বিভাগে মনোনয়ন পায়।

এই পর্যন্ত হিন্দী ও বাংলা মিলিয়ে মোট ৮টি এলবাম এবং বেশ কিছু একক গান প্রকাশিত হয়েছে। প্রথম বাংলা দ্বৈত এলবাম ‘অচেনা একটা দিন’ প্রকাশিত হয় ২০০৯ সালে ভজন সম্রাট অনুপ জলোটার সঙ্গে। এই এলবামে তিনি সমরজিতের সুরে গান করেন। ২০১১ সালে কোলকাতায় ‘ভাবনা রেকর্ডস’ এর ব্যানারে রবীন্দ্র সঙ্গীতের অ্যালবাম ‘রবি রঞ্জনী’র মোড়ক উন্মোচন করেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়।

২০১৩ সালে দিল্লীতে হিন্দী ভজনের এলবাম ‘প্রতিধ্বনি’ র মোড়ক উন্মোচন করেন শিল্পী অনুপ জলোটা। ২০১৬ সালে বাংলাদেশের ‘বাংলাঢোল’ এর ব্যানারে প্রকাশিত হয় সমরজিৎ এর ৭ম এলবাম ‘গোধূলিবেলা’। ভারতের ভূতপূর্ব রাষ্ট্রপতি প্রয়াত আব্দুল কালাম আজাদের আমন্ত্রণে ৩ বার রাষ্ট্রপতি ভবনে সঙ্গীত আসরে অংশগ্রহণ এবং মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেয়ার সৌভাগ্য হয়েছে সমরজিতের। ভারতের জনপ্রিয় চ্যানেল গঐ১ এর একটি রিয়েলিটি শোতে অনুরাধা পাড়োয়ালের সঙ্গে বিচারকের দায়িত্বও পালন করেন সমরজিৎ।

Leave a Reply

এটাও পছন্দ করতে পারেন

‘কৃষ্ণলীলা’র জন্য সাড়া পাচ্ছেন বিন্দু কণা

হয়ে গেলো বিউটির স্বপ্ন পূরণ

ফাহমিদা নবীর সুরে গাইলেন সৈয়দ আব্দুল হাদী

স্টেজ শো’তে অপ্রতিদ্বন্দ্বী আঁখি আলমগীরের ব্যস্ততা শুরু

বিরতির পর সিনেমার গানে দিঠি আনোয়ার

সেই পুতুলের ‘চোখের কোণে জল’

Copy link
Powered by Social Snap