সর্বশেষ আপডেট :February 20, 2020
Ovinews24

বাপ্পা, অমিত, শাবনাজের ‘প্রেমের সমাধি’র দুই যুগ

February 10, 2020

অভি মঈনুদ্দীন : ১৯৯৬ সালে বাপ্পারাজ, অমিত হাসান ও শাবনাজ অভিনীত ‘প্রেমের সমাধি’ সিনেমাটি ব্যাপক ব্যবসা সফল হয়েছিলো। এই সিনেমার গল্প, তিন তারকার মনোমুগ্ধকর অভিনয় আর গান সেই সময় দর্শকের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছিলো। দেশের আনাচে কানাচে ‘প্রেমের সমাধি’ সিনেমার গান তখন দিন রাত বাজতো। সিনেমাটি মুক্তির প্রায় দুই যুগ পেরিয়ে গেলেও এখনো এই সিনেমার গান দর্শকের মুখে মুখে প্রায়ই শোনা যায়। শুধু তাই নয় বাপ্পারাজ, অমিত হাসান কিংবা শাবনাজকে দর্শক কোথাও পেলে গল্পে গল্পে ‘প্রেমের সমাধি’র গল্প উঠেই আসে। সময়ের পরিক্রমায় আজ তাদের তিনজনের অভিনীত প্রথম সিনেমা ‘প্রেমের সমাধি’ মুক্তির সাফল্যের দুই যুগে পদার্পণ করেছে। দুই যুগে পদার্পণের আগেই কিছুদিন আগে এই তিন তারকা একটি ঘরোয়া আড্ডায় একত্রিত হয়েছিলেন। সেই সময়েই তারা তিনজন মোহসীন আহমেদ কাওছারের ক্যামেরার ফ্রেমে বন্দী হন। আর নিজেরই ‘প্রেমের সমাধি’র গল্পে মেতে উঠেন। শাবনাজ বলেন,‘ ভাবাই যায়না দেখতে দেখতে জীবন থেকে এতোটা বছর পেরিয়ে গেছে। প্রেমের সমাধি’ সিনেমাতে অভিনয় করে সেই সময় অনেক সাড়া পেয়েছিলাম। অবশ্য এখনো কোথাও প্রেমের সমাধি’ সিনেমাটি সেই সময় দেখেছেন কিংবা পরবর্তীতেও দেখেছেন এমন কারো সঙ্গে দেখা হলে সিনেমাটির গল্প কথা প্রসঙ্গে তুলে ধরেন, তুলে ধরেন আমার অভিনীত হেনা চরিত্রটির কথা। শুনতে বেশ ভালোই লাগে। আমার অভিনয় জীবনের একটি মাইলফলক সিনেমা এটি। দর্শকর এখনো যে সিনেমাটির কথা মনে রেখেছেন এটাও আসলে অনেক ভালোলাগার। সহশিল্পী হিসেবে বাপ্পারাজ এবং অমিত হাসান সেই সময় আমাকে বেশ সহযোগিতা করেছিলেন। আমরা শূটিং-এ অনেক মজাও করেছিলাম। পুরোনো সেইসব দিনের কথা ভাবতে আসলে ভালোইলাগে। দর্শকের কাছেও আমরা কৃতজ্ঞ তারা সেই সময় কষ্ট করে হলে গিয়ে সিনেমাটি দেখেছিলেন। তা না হলেতো প্রেমের সমাধি’ এতোটা জনপ্রিয় সিনেমা হয়ে উঠতোনা।’ সিনেমাটির কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও গীত রচনা করেছিলেন দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, সঙ্গীত পরিচালনা করেছিলেন আনোয়ার জাহান নান্টু। সিনেমাটি পরিচালনা করেছিলেন ইফতেখার জাহান। ১৬ রিলের ১৪৬৯৪ ফুটের এই সিনেমাটির জনপ্রিয় গানগুলো হচ্ছে ‘জীবনের নৌকা চলে হেলে দুলে’,‘ প্রেমের সমাধি ভেঙ্গে’,‘ তুমি বন্ধু আমার চির সুখে থাকো’। গান গেয়েছিলেন সাবিনা ইয়াসমিন, অ্যা-্রু কিশোর, শাকিলা জাফর, বেবী নাজনীন। এই সিনেমায় অভিনয় করা তিন শিল্পী আনোয়ার হোসেন, দিলদার, অন্তরা এখন প্রয়াত। সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছিলেন এটিএম শামসুজ্জামান, গাঙ্গুয়া। সিনেমাটির নৃত্য পরিচালক ছিলেন আজিজ রেজা এবং ফাইট ডিরেক্টর ছিলো আরমান গ্রুফ। সিনেমাটোগ্রাফার ছিলেন জাকির হোসেন। সিনেমাটি প্রযোজনা করেছিলেন আতাউর রহমান টুনু। ‘প্রেমের সমাধি’র পর তারা তিনজন গাজী মাজহারুল আনোয়ারের ‘তপস্যা’ সিনেমাতেও অভিনয় করেছিলেন।
ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

Leave a Reply

এটাও পছন্দ করতে পারেন

মায়ের সম্মাননা প্রাপ্তিতে গর্বিত মেয়ে

‘কেশ কন্যা’ শাহনূর

‘ইন্দুবালা’য় গল্পের নায়ক আশিক চৌধুরী

আলোকিত নারী’ সম্মাননায় ভূষিত অপু বিশ্বাস

শ্রেষ্ঠ করদাতা’র পুরস্কারে ভূষিত ববিতা, মমতাজ ও তাহসান

সেই নির্মাতার হাত ধরে আবারো তমা, নতুন স্বপ্নের শুরু

Copy link
Powered by Social Snap