সর্বশেষ আপডেট :December 6, 2019
Ovinews24

মাসুম মিলিও হয়ে উঠলেন অনুসরণীয় তারকা দম্পতি…

October 1, 2019

বিনোদন প্রতিবেদক : নাট্যাঙ্গনের এই সময়ের প্রিয় দুই মুখের নাম মাসুম বাশার ও মিলি বাশার। বিগত বেশ কয়েকবছর ধরে টিভি নাটকে বাবা মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করে দু’জনই বেশ প্রশংসা কুঁড়িয়েছেন। যে কারণে টিভি নাটকে/টেলিফিল্মে এখন তাদের দু’জনকেই বাবা মায়ের ভূমিকায় বেশ ব্যস্ত সময় পার করতে হয়। বাস্তব জীবনে মাসুম বাশার ও মিলি বাশার সুখী দম্পতি। তাদের দুই কন্যা নাবিলা বাশার ও নাজিবা বাশার। ছোট মেয়ে নাজিবা বাশারও অভিনয়ের সাথে সম্পৃক্ত। মাসুম ও মিলির অভিনয়ের দুনিয়ায় মূলত পথচলা শুরু হয় ‘ঢাকা থিয়েটার’-এ কাজ করার মধ্যদিয়ে। ১৯৭৪ সালের শেষ দিকে নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চুর নির্দেশনায় ‘মুনতাসির ফ্যান্টাসি’ নাটকে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে মঞ্চে মাসুমের দাপুটে পদচারণা শুরু হয়। অন্যদিকে ১৯৭৯ সালে মিলি’র ‘শকুন্তলা’ নাটকে একই পরিচালকের নির্দেশনায় অভিনয়ের মধ্যদিয়ে যাত্রা শুরু হয়। একসঙ্গে পথ চলতে চলতে ভালোলাগা আর ভালোবাসর এক খাঁটি বন্ধন তৈরী হয় মাসুম ও মিলির মধ্যে। পরবর্তীতে ১৯৮২ সালের ৩০ জুলাই তারা বিয়ে করেন। এক সময় দেশের বাইরেও দীর্ঘদিন কাটান এই তারকা পরিবার। ২০১২ সালে দেশে ফিরেন তারা। দেশে ফিরে মাসুম ও মিলি আবারো অভিনয়ে ব্যস্ত হয়ে উঠেন। টেলিভিশনে মাসুম ও মিলি প্রথম একসঙ্গে কাজ করেন মাতিয়া বানু শুকুর নির্দেশনায় ‘আগুন আল্পনা’ ধারাবাহিকে। এটি চ্যানেল নাইনে প্রচারিত হয়। এরপর তারা দু’জন একসঙ্গে চ্যানেল আইতে প্রচার চলতি ‘প্রিয় দিন প্রিয় রাত’, এজাজ মুন্নার নতুন ধারাবাহিক ‘শহর আলী’সহ ইমরাউল রাফাত, আশফাক নিপুণ, মেহেদী হাসান জনি’সহ আরো বেশ কয়েকজন পরিচালকের একক নাটকেও অভিনয় করেন। সিনেমাতেও তারা দু’জন একসঙ্গে অভিনয় করেছেন। মোস্তফা কামাল রাজের ‘যদি একদিন’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন। এছাড়াও তারা দু’জন প্রয়াত সাইদুল আনাম টুটুল’র ‘কালবেলা’, তানভীর মোকাম্মেল’র ‘রূপসা নদীর বাঁকে’ সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন। দুটি বিজ্ঞাপনেও একসঙ্গে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন তারা দু’জন। অভিনয়কে পেশা হিসেবে বেছে নিয়ে দু’জনই সন্তুষ্ট। মাসুম বাশার বলেন,‘ অভিনয়টা আমি দারুণ উপভোগ করি সবসময়। অভিনয় করলেই আমি সুস্থ থাকি ভালো থাকি। তবে কিছু কিছু পরিচালক আছেন কাজ করিয়ে পারিশ্রমিক নিয়ে নানান তাল বাহানা করেন। অভিনয় শিল্পী সংঘ, ডিরেক্টরস গিল্ড, প্রযোজক সমিতির শিল্পী এবং পরিচালকদের ক্ষেত্রে নো অবজেকসন সার্টিফিকেট বিষয়টির দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহন করলে এর থেকে পরিত্রাণ পাওয়া সম্ভব।’

মিলি বাশার বলেন, ‘ দেখতে দেখতে জীবন থেকে অনেকটা সময়ই চলে গেছে। এখন অভিনয় করতেই বেশি ভালোলাগে। পরিবারের সবাইকে নিয়ে অভিনয় পরিবারের সবার সঙ্গে ভালোভাবে থাকতে চাই। আর একটি কথা না বললেই নয়, আমার অভিনয় জীবনের চলার পথে অনেক বড় অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করে আমার স্বামী মাসুম বাশার। তার সুস্থতা কামনা করি সবসময়।’ এরইমধ্যে মাসুম ও মিলি শেষ করেছেন শ্রাবণী ফেরদৌসের নির্দেশনায় ‘অন্যরকম ভালোবাসা’ নাটকের কাজ। আজ রুলীন রহমানের নির্দেশনায় নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘সুতোয় বাঁধা সুখের পায়রা’ ধারাবাহিক নাটকের শুটিং করছেন মাসুম। অন্যদিকে মিলি মিজানুর রহমান আরিয়ানের নির্দেশনায় একটি নাটকের কাজ করছেন। যেদিন শুটিং থাকে সেদিন দু’জনই একসঙ্গে ঘর থেকে বের হন। আবার শুটিং শেষে একে অন্যের জন্য অপেক্ষা করে আবারো একসঙ্গে ঘরে ফিরেন। দু’জনের প্রতি দু’জনের ভালোলাগাটা যেন আজও সেই প্রথম দিনের মতোই আছে। টিভিতে মাসুম অভিনীত প্রথম অভিনয় করেন বদরুন্নেসা আব্দুল্লাহর নির্দেশনায় এবং মিলি অভিনয় করেন আতিকুল হক চৌধুরীর নির্দেশনায়। ১৯৭৯ সালে মাসুম ও মিলির পরিচয়ের পর থেকে আজকের দিন পর্যন্ত তাদের পথচলার চার দশক চলছে। বাকীটা জীবন এভাবেই সুখে দু:খে কাটিয়ে দিতে চান তারা দু’জন ।
ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

Leave a Reply

এটাও পছন্দ করতে পারেন

যুবরাজ খালেদ খানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেন রুনা খান

অন্যরকম স্বপ্ন নিয়ে নারায়ণগঞ্জের পূর্ণিমা বৃষ্টি

শামীম-ফারিণের ‘জবান’-এ প্রশংসিত হচ্ছে লুইপা’র গান

মিলাদ বড় ভূঁইয়ার নির্দেশনায় টয়া

আগামী বই মেলায় আসছে শানু’র তিনটি বই

‘আগুনের পরশমনি’ থেকে আজকের হোসনে আরা পুতুল

Copy link
Powered by Social Snap