সর্বশেষ আপডেট :July 2, 2020
Ovinews24

সেই মেয়েটি’কে এখনো খোঁজেন দর্শক…

June 23, 2020

অভি মঈনুদ্দীন : প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী অভিনীত নাজমুল হূদা মিন্টু পরিচালিত ‘মৌসুমী’ সিনেমার ‘সেই মেয়েটি আমাকে ভালোবাসে কী না আমি জানিনা’ গানটি এখনো শ্রোতা দর্শকের মাঝে বেশ জনপ্রিয়। বিশেষত প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী’র নাম নিলেই গানটি অনেকেই গেয়ে উঠেন। গাজী মাজহারুল আনোয়ারের লেখা এই গানটির সুর সঙ্গীত করেছিলেন প্রয়াত আনোয়ার পারভেজ (নায়ক জাফর ইকবাল ও সঙ্গীতশিল্পী শাহনাজ রহমতুল্লাহর বড় ভাই)। গানটিতে কন্ঠ দিয়েছিলেন প্রয়াত খালিদ হাসান মিলু। পরবর্তীতে খালিদ হাসান মিলু মারা যাবার পর এই গানটি সঙ্গীতা থেকে আবারো প্রকাশ করা হয়। গানটি নতুন করে গেয়েছিলেন প্রতীক হাসান। নতুন করে গাওয়া মিউজিক ভিডিওতে মডেল হয়েছিলেন এই সময়ের দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী আয়েশা সালমা মুক্তি। মিউজিক ভিডিওটি নির্মাণ করেছিলেন দেবাশীষ বড়ুয়া দীপ। প্রতীক হাসানের অনবদ্য গায়কী’তে সেই মেয়েটি’র চরিত্রে মুক্তিও বেশ প্রাণবন্ত অভিনয় করেছিলেন। প্রতীক হাসানের কন্ঠে এই গানটি শুনতে গিয়ে দর্শক মনের অজান্তে এখনো মুক্তি’কে খুঁজে বেড়ান। যদিও বা মৌসুমী’ সিনেমা মুক্তির সময়ই গানটি দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছিলো। কিন্তু প্রতীক হাসানের কন্ঠেও গানটি শ্রোতা দর্শকেরা তার বাবার কারণেই নতুন করে আলোচনায় এনে দিয়েছিলো। আলোচনায় এসেছিলো মুক্তিও। মুক্তি বলেন,‘ এটি ছিলো আমার প্রথম মিউজিক ভিডিও। যেহেতু আমাদের শ্রদ্ধেয় নায়িকা মৌসুমী আপুর নামেই সিনেমাতে এই গানটিতে পারফর্ম করেছিলেন মৌসুমী আপু নিজেই। তাই পরবর্তীতে এই গানে আমার মডেল হিসেবে কাজ করাটাও ছিলো ভীষণ চ্যালেঞ্জের। কিন্তু তারপরও পরিচালক দেবাশীষ বড়ুয়া দীপের সহযোগিতায় আমি চেষ্টা করেছিলাম নিজেকে যথাযথভাবে ফুটিয়ে তুলতে। এখনো এই গানের জন্য সাড়া পাই।’

মুক্তি জানান পরবর্তীতে আরো বেশকিছু গানের মিউজিক ভিডিওতে মডেল হিসেবে কাজ করেছিলেন। কিন্তু এই গানের জনপ্রিয়তাকে ছাপিয়ে যেতে পারেনি। মুক্তি সর্বশেষ সৌমিত্র ঘোষ ইমনের নির্দেশনায় ঝর্ণা’র একটি গানে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন। মুক্তি লকডাউন শুরুর আগে সর্বশেষ সাজ্জাদ হোসেন দোদুলের নির্দেশনায় ‘ছায়াবিবি’ ধারাবাহিকে অভিনয় করেছিলেন। ১৯৯৯ সালে ‘বিনোদন বিচিত্রা ফটোসুন্দরী’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে নিজেকে মিডিয়ার সাথে সম্পৃক্ত করেন। মিডিয়াতে দীর্ঘদিন কাজ করলেও তার স্বপ্ন ছিলো প্রিয় নায়ক সালমান শাহর’ সঙ্গে সিনেমায় অভিনয় করার। কিন্তু সেই স্বপ্ন ধরাই রয়েগেলো তার। মিনহাজুর রহমানের পরিচালনায় একুশে টিভিতে প্রচারিত তৌকীর আহমেদ’র বিপরীতে ‘অগ্নিগিরি’ নাটকে মুক্তি প্রথম অভিনয় করেন। পরবর্তীতে সালাহ উদ্দিন লাভলুর নির্দেশনায় ‘রঙ্গের মানুষ’ ধারাবাহিকে দিলখুশ চরিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন একজন অভিনেত্রী হিসেবে। মুক্তির বাবা প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আবদার রহমান, মা রোকেয়া রহমান। সার্ফ এক্সেলের বিজ্ঞাপনে মুক্তি প্রথম তারিক আনাম খানের নির্দেশনায় বিজ্ঞাপনে মডেল হন। পরবর্তীতে তিনি সালাহ উদ্দিন লাভলু, আনজাম মাসুদ’সহ আরো অনেকের বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেন। করোনা’র এই সময়ে এখনো শুটিং-এ ফিরেননি তিনি।
ছবি : গোলাম সাব্বির

Leave a Reply

এটাও পছন্দ করতে পারেন

ক্রাউন’র প্রযোজনায় পরিচালনায় ছন্দা…

বিরতির পর ফিরে এসেই পাঁচ নাটকে তানিয়া বৃষ্টি…

মামুনুর রশীদের সঙ্গে কাজ করে উচ্ছসিত পূর্ণিমা বৃষ্টি…

নন্দিনী’ হয়ে আসছেন হিমি…

আমি আমার বাবার আদরের সোনাই : স্বর্ণলতা

প্রত্যাশা বেড়ে গেলো নরেশ ভূঁইয়া’র…

Copy link
Powered by Social Snap